প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক লোন নিয়ম | লোন নিতে কি কি লাগে?

আপনি যদি প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক লোন নেওয়ার নিয়ম সম্পর্কে জানতে চান তাহলে আমাদের আজকের এই লেখাটি আপনার জন্য। আজকের এই লেখার মধ্যে আপনাদের সঙ্গে আমি প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক লোন নিয়ম নিয়ে আলোচনা করব। কিভাবে আপনারা প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক থেকে লোন নিতে পারবেন সেই বিষয় নিয়েই মূলত আলোচনা করা হবে।

তারপরে প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক লোন সুবিধা এবং প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক লোন নিতে কি কি লাগে ও বাংলাদেশ প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক লোন সম্পর্কে সকল কিছু আজকের লেখার মাধ্যমে জানতে পারবেন।

প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক লোন নিয়ম

প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক লোন এবং এর  সমস্ত প্রকারভেদঃ

প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংকের অধীনে আপনি যে সমস্ত লোনের সুবিধা গুলো উপভোগ করতে পারবেন সেগুলো নিচে একটা লিস্ট করে আপনাদের সামনে উপস্থাপন করা হলো। মূলত আপনারা প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক থেকে এই সমস্ত নামের অধীনে লোন নিতে পারবেন।

  • অভিবাসী ঋণ প্রদান।
  • পূনর্বাসন ঋণ।
  • বঙ্গবন্ধু অভিবাসী বৃহৎ পরিবার ঋণ।
  • বিশেষ পুনর্বাসন ঋণ।

উপরে আপনাদের সঙ্গে যে চারটা প্রকল্পের কথা শেয়ার করা হয়েছে সেই সমস্ত প্রকল্প অনুযায়ী প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংকের যে কোন গ্রাহকগণ লোনের সুবিধা গুলো উপভোগ করতে পারবে।

তাহলে চলুন আমরা এখন জেনে নেই এই চারটি প্রকল্পের ভেতর থেকে আপনি যদি লোন নিতে চান তাহলে সে ক্ষেত্রে, প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক লোন নিতে কি কি লাগে, বাংলাদেশ প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক লোন এবং নিয়মাবলীগুলো সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক।

অভিবাসী ঋণ প্রদান

আপনারা যদি প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক থেকে অভিবাসী ঋণ সুবিধা নিতে চান বা এই ঋণ সুবিধা উপভোগ করতে চান, তাহলে যে সমস্ত জিনিস গুলো আপনাদের দরকার হবে এবং লোন নেওয়ার যোগ্যতা ও নিয়ম গুলো সম্পর্কে জেনে নিন।

লোন নেওয়ার জন্য আপনার যে সমস্ত যোগ্যতা দরকার হবে-

  • আপনার পরিচিত আত্মীয়-স্বজন কিংবা আপনাকে যে নিয়োগ করবে তার মাধ্যমে যদি আপনি বিদেশে চাকরির জন্য ভিসা পেয়ে থাকেন, তাহলে সেক্ষেত্রে আপনি এই লোন এর আওতাভুক্ত হবেন।
  • আপনি যখন অনুপস্থিত থাকবেন যখন বাংলাদেশে থাকবেন না তখন যাতে আপনার ফ্যামিলি আপনার নেওয়া ব্যাংক থেকে ঋণ চালানোর মত সক্ষম হতে হবে।
  • জামিনদার যিনি হবেন সেই ব্যক্তির আর্থিক স্বচ্ছলতা অবশ্যই থাকা লাগবে।
  • যে ব্যক্তি লোনের জন্য আবেদন করবেন তার ভিসা যাচাই করার জন্য দুই কপি ছবি আর তার মোবাইল ফোন নাম্বারটি দিতে হবে। তাহলে পরবর্তী তিন দিনের মধ্যে আপনার লোন নেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে দেওয়া হবে ব্যাংক থেকে।

কৃষি ব্যাংক লোন নেওয়ার নিয়ম (ইন্টারেস্ট রেট, মৎস ঋণ)

প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক লোন নিতে কি কি লাগে?

যদি আপনি আবেদন করার পর লোন পাওয়ার জন্য উপযুক্ত হয়ে থাকেন, তাহলে সে ক্ষেত্রে যে সমস্ত ডকুমেন্ট এর আপনাদের দরকার হবে সেগুলো নিচে শেয়ার করা হলো।

  • ঋণ নেওয়ার জন্য আপনাকে ব্যাংকের যে কোন শাখায় গিয়ে তারপরে ব্যাংক কর্মকর্তাদের কাছে থেকে আবেদন পত্র সংগ্রহ  করে নিতে হবে।
  • তারপরে আবেদনকারীর সদ্য তুলা দুই কপি ছবি ও জাতীয় পরিচয় পত্র এর ডকুমেন্ট প্রদান করা লাগবে।
  • আর তাছাড়া আবেদনকারীর ব্যক্তির স্থায়ী ঠিকানা এর তথ্যগুলো প্রদান করা লাগবে ব্যাংকে।
  • আবেদনকারী জামিনদার যিনি হবেন তার সদ্য তোলা দুই কপি ছবি ও স্বত্বাধিকার সূত্রে জাতীয় পরিচয় পত্র এর ডকুমেন্ট দিতে হবে।
  • শারীরিক যোগ্যতার এর সার্টিফিকেট দেখানো লাগবে।
  • ঋন গ্রহণ করার সময় ব্যক্তিকে বীমা সুবিধা নেওয়া লাগবে  ইত্যাদি।

প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক ঋণ পরিশোধ করার চার্জ ও সময়সীমা

  • নির্দিষ্ট পরিমাণ অঙ্কের ঋণ নেওয়ার পরে যখন ঋণের টাকা ফেরত দিবেন তখন আপনাকে শতকরা সুদের হার ০৯ টাকা দেওয়া লাগবে।
  • আপনি বিদেশি কত বছর থাকবেন এবং দেশের ভিসার মেয়াদ অনুযায়ী ঋণ পরিশোধ করার সময়সীমা নির্ধারণ করে দেওয়া হবে ব্যাংক থেকে। আর এই ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ সময়সীমা হলো দুই বছর পর্যন্ত।
  • ব্যাংক থেকে ঋণ নেওয়ার পরে যে ব্যক্তি ঋণ নেবেন তাকে মাসিক কিস্তিতে পরিশোধ করা লাগবে।

পূনর্বাসন ঋণ

তাছাড়া আপনি যদি বিভিন্ন কৃষি প্রকল্প এর জন্য ঋণ নিতে চান ব্যাংক থেকে, তাহলে আপনি প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক থেকে পুনর্বাসন ঋণ সেবা নিতে পারবেন খুব সহজেই, আর এই ঋণ নিয়ে মূলত বিভিন্ন ক্ষুদ্র এবং কুটির শিল্প প্রকল্প বাস্তবায়ন করতে পারবেন।

একটা ছাড়া আপনি এই ঋণ নিয়ে মুরগির খামার, মৎস্যচাষ, গরু মোটাতাজাকরণ করার কাজে, তথ্যপ্রযুক্তিনির্ভর উদ্যোক্তা এই সমস্ত যে কার্যক্রম গুলো রয়েছে সেগুলো আপনি খুব সহজেই করতে পারবেন।

পূর্ণবাসন ঋণ নেওয়ার জন্য আপনার যে সমস্ত যোগ্যতা দরকার হবে –

এই ঋণ শোধ নিতে চান তাহলে আপনাকে বিদেশ প্রত্যাগত হওয়া লাগবে এবং প্রত্যাগত হওয়ার পরে বৈধ কাগজপত্র সহ মোট পাঁচ বছরের ভিতরেই আবেদন করার কাজটি সম্পন্ন করতে হবে।
ঋণগ্রহণকারী জামানত কৃত সম্পত্তির মালিকানা দলিল এবং অন্যান্য সকল দরকারি কাগজপত্র ব্যাংকে জমা দেওয়া লাগবে।

ঋণ গ্রহণের জন্য যে সমস্ত কাগজপত্র গুলো দরকার হবে সেগুলো নিচে দেওয়া হল-

  • আবেদন যিনি করবেন তার সদ্য তোলা ৩ কপি ছবি ভোটার আইডি কার্ড বর্তমান এবং স্থায়ী ঠিকানা টা রয়েছে সেটি সনাক্ত করার জন্য সকল ডকুমেন্ট ব্যাংকে প্রদান করতে হবে।
  • প্রকল্পের স্থান হিসেবে যে জায়গাটিতে নির্বাচন করা হবে সেই জায়গা যদি নিজস্ব হয়ে থাকে তাহলে তার কাগজপত্র প্রদান করতে হবে আর যদি ভাড়া নিয়ে থাকেন তাহলে চুক্তি পত্রের ফটোকপি দেখানো লাগবে।
  • বিদেশ হতে প্রত্যাগমনের সকল কাগজপত্র গুলো দেখাতে হবে ব্যাংকে।
  • যারা এই প্রকল্পের জন্য জামিনদার হবেন সেই সমস্ত মানুষদের সকল অরিজিনাল কাগজপত্র ব্যাংকে জমা দিতে হবে।
  • আর তাছাড়া আপনাদের কাছ থেকে অন্যান্য যে সমস্ত Contact info চাওয়া হবে সেগুলো আপনারা দিয়ে দিবেন তাহলেই হবে। অর্থাৎ আপনাদের সাথে যোগাযোগ করার জন্য আপনাদের মোবাইল ফোন নাম্বার চাইতে পারে সেগুলো আপনারা দিয়ে দিলেই হবে।

ঋণ পরিশোধ করার Charge

  • ব্যাংক থেকে লোন নিলে সুদের হার শতকরা ৯ টাকা  আর প্রকল্পের ধরন অনুযায়ী  আপনার ঋণ এবং পরিস্থিতির সময়সীমা  ও  অর্থ সীমা নির্ধারণ  করে দেওয়া হবে,  আশা করি বিষয়টি বুঝতে পেরেছেন।

বঙ্গবন্ধু অভিবাসী বৃহৎ পরিবার ঋণ

আর তাছাড়াও আপনারা যদি বঙ্গবন্ধু অভিবাসী বৃহৎ পরিবার ঋণ প্রকল্পের সঙ্গে নিজেদেরকে সম্পৃক্ত করতে চান তাহলে সেক্ষেত্রে এই  সম্পর্কিত যে সমস্ত বিষয় গুলো রয়েছে সেগুলো সম্পর্কে আপনাকে আগে জেনে নিতে হবে, নিচে নিয়ে একটি পিডিএফ লিংক দিয়ে দিলাম সে টি ডাউনলোড করে আপনারা সমস্ত কিছু জেনে নিতে পারবেন খুব সহজেই।

ডাউনলোড

উপরে দেওয়া লিংকের মাধ্যমে যদি আপনারা পিডিএফ ফাইলটি ডাউনলোড করে  নিয়ে থাকেন, তাহলে বঙ্গবন্ধু অভিবাসী বৃহৎ পরিবার ঋণ প্রকল্প সম্পর্কে সকল তথ্য এবং বিস্তারিত সব কিছু জেনে নিতে পারবেন অনায়াসেই।

বিশেষ পুনর্বাসন ঋণ

প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক লোনের ভিতর একটি অন্যতম প্রকল্প  হচ্ছে  বিশেষ পুনর্বাসন ঋণ প্রকল্প। আর এই ঋণ প্রকল্প সম্পর্কে আপনি যদি বিস্তারিত জানতে চান তাহলে সে ক্ষেত্রে একটি পিডিএফ ফাইল রয়েছে সেই ফাইলটি আপনারা যদি ডাউনলোড করে নেন তাহলে আশা করি সমস্ত কিছু আপনারা জানতে পারবেন।

আপনারা যদি এই ঋণ প্রকল্প সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে চান তাহলে নিচের দেওয়া পিডিএফ ফাইলটি ডাউনলোড করে নিবেন তাহলেই সমস্ত কিছু জেনে নিতে পারবেন। নিচে আমি পিডিএফ ফাইল এর লিঙ্ক টি আপনাদের সাথে শেয়ার করে দিলাম।

ডাউনলোড

উপরে দেওয়া লিঙ্ক থেকে আপনি এই প্রকল্পের পিডিএফ ফাইলটি ডাউনলোড করে নিলে তখন এই ঋণ প্রকল্প সম্পর্কে বিস্তারিত সকল তথ্য নিতে পারবেন এবং এই ঋণ প্রকল্প কি কাজে ব্যবহার করা হয়ে থাকে সেই সম্পর্কেও সকল তথ্য জানতে পারবেন।

আর তাছাড়া আপনারা, এই লোন নেওয়ার ক্ষেত্রে যে সমস্ত প্রয়োজনীয় কাগজপত্র গুলো দরকার হবে এবং অন্যান্য সকল যে তথ্য আপনাদের ব্যাংকে দেওয়া দরকার হবে সেগুলো জেনে  নিতে পারবেন।

তাহলে আপনারা উপরে দেওয়া লিঙ্ক থেকে পিডিএফ ফাইলটি ডাউনলোড করে প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংকের লোন সেবার মধ্যে সবার শেষে সেবাটি রয়েছে সেই সেবাটি সম্পর্কে জেনে নিয়ে তারপরে সেবা উপভোগ করতে আর এক ধাপ এগিয়ে থাকবেন অন্যদের থেকে।

পরিশেষেঃ তাহলে আজকের আর্টিকেল থেকে আপনারা প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক লোন নিয়ম এবং প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক থেকে কিভাবে লোন নিবেন সে সম্পর্কে সকল তথ্য জানতে পারলেন। আর আপনারা যদি এরকম এর বিভিন্ন ইন্টারেস্টিং প্রতিদিন পেতে চান তাহলে আমাদের ওয়েবসাইটের সঙ্গে থাকবেন।

Leave a Comment